BD Tips child health tips Health Tips

শিশুদের মস্তিষ্ক বৃদ্ধি করতে কিছু পরামর্শ

Share this

৫ বছরের মধ্যেই একজন শিশুর ৯০% মস্তিষ্ক গঠন হয়ে যায়। তাই ৫ বছরের পূর্বে থেকেই মস্তিষ্ক গঠনে ও বৃদ্ধিতে যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।


কিছু বিষয় আছে, যেগুলো শিশুর মস্তিষ্ক শু-গঠিত ভাবে বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। শিশুর মস্তিষ্ক ভালোভাবে বৃদ্ধির জন্য কিছু জরুরি টিপ্স জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি।

গর্ভাবস্থায় ধূমপান করবেন না এবং ধুমপায়ির কাছ থেকে দুরে থাকুন:

শিশুর জীবন সুস্থ্য ও স্বাস্থ্যকর করতে হলে প্রথম থেকে সচেতন হতে হবে। কারো ধূমপানের অভ্যাস থাকলে গর্ভাকালীন সময় এই অভ্যাস একেবারেই বাদ দিতে হবে। কারণ, সিগারেটের মধ্যে থাকা ক্ষতিকর উপাদান গর্ভে থাকা শিশুর মস্তিষ্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করে বলে ডক্টরদের পরীক্ষায় প্রমানিত।

শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ান:
নবজাতকের জন্য বুকের দুধ খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি এটি শিশুর মস্তিষ্ক বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা যায়, যারা বুকের দুধ ভালোভাবে পান করে, তাদের বুদ্ধিমত্তা বেশি থাকে, যারা বুকের দুধ পান করে না তাদের তুলনায়।
সংগীতের সঙ্গে পরিচয়:
শিশুকে একেবারে ছোটবেলা থেকেই সংগীতের সঙ্গে পরিচয় করান। সংগীত কগনেটিভ হেলথ বা জ্ঞানীয় স্বাস্থ্য উন্নতিতে সাহায্য করে। সবচেয়ে ভালো হয় শিশুকে সংগীত শেখাতে পারলে। ভালো সংগীত শুনলে মস্তিষ্ক থেকে ডোপামিন নামের রাসায়নিক বের হয়। এটি কোনো কিছু শেখার ক্ষেত্রে প্রেরণা জোগায়।
স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ান:

ছোটবেলা থেকেই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার অভ্যাস শিশুর মধ্যে গড়ে তুলুন। শরীর ও মস্তিষ্কের গঠনের জন্য ভালো পুষ্টি খুব জরুরি। ফাস্টফুড এড়িয়ে আপেল, পালংশাক, ব্রকলি, ওটমিল, কালো চকলেট, তরমুজ, দুধ, বাদাম, বীজ জাতীয় খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন।
সৃজনশীল খেলনা:
মস্তিষ্কের বৃদ্ধির জন্য শিশুকে সৃজনশীল খেলনা দিয়ে খেলতে না। এমন ধরনের খেলনা দিন, যেন এটি তার সৃজনশীলতাকে বাড়াতে সাহায্য করে।

About the author

bahar babu

Leave a Comment